নিজস্ব সংবাদাতা: : টিটাগর এর জনপ্রিয় বিজেপি নেতা তথা ব্যারাকপুর আদালতের বিশিষ্ট আইনজীবী মনীষ শুক্লা দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হওয়ার পর গোটা ব্যারাকপুর জুড়ে রাজনৈতিক পরিস্থিতি যথেষ্ট উত্তাল। আর এই পরিস্থিতিতে টিটাগড়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে শান্তি মিছিলের আয়োজন করা হচ্ছে আজ।এই শান্তি মিছিল টিটাগর পৌরসভার সামনে থেকে শুরু হয়ে বিটি রোড ধরে ব্যারাকপুর চিড়িয়া মোড় শেষ হয় মিছিলে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।


ব্যারাকপুরে এবার হবে বদলা, হুমকি মদনের, মা দুর্গা শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য অসুর বধ করেছিলেন। ব্যারাকপুরে শুরু হল বদলা। অশান্তি রুখতে এবার বদলা হবে। মঙ্গলবার বিকেলে ব্যারাকপুরে শান্তিমিছিলের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন রাজ্যের প্রাকন পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্র।

তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম এই বিষয়ে বলেন,”মনীশ শুক্লা তৃণমূল কংগ্রেস পার্টি আগে আমার সাথে ভালো সম্পর্ক ছিলো। একটা বাচ্ছা ছেলে, তার মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখের। কিন্তু এইটা নিয়ে যেভাবে বিজেপি একটা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছে, এলাকাকে উত্তপ্ত করার চেষ্টা করছে তার বিরুদ্ধে মানুষ জনের কাছে তৃণমূল কংগ্রেস শান্তির জন্য শান্তির মিছিল করছে এবং আমরা সবাই মিলে এলাকায় শান্তি -শৃঙ্খলা রক্ষা করবো। বিজেপির এই গুন্ডামি, ভেদাভেদ রাজনীতি, এর থেকে আমাদের বাংলা চিরকাল বিরত থেকেছে। তাই এই শান্তির মিছিল। সত্যিকারের যারা দোষী তারা ধরা পড়েছে এবং আরও পড়বে। “

পাশাপাশি তৃনমুল নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “২০১৯ এর নির্বাচনের ভোটের ফলাফল বেড়ানোর পর থেকেই এই অশান্তি শুরু হয়। এখনও চলছে খুন, পাল্টা খুন। পাল্টা খুনে আমরা কিন্তু নেই, বিজেপির মধ্যেই পাল্টা খুন চলছে। তুমি যদি বিজেপি পার্টি না করো তাহলে তুমি মার খাবে। আমরা চাইছি যে সত্য উদ্ঘাটন হোক । মনীশ শুক্লা খুনের পিছনে সত্যিটা উদ্ঘাটন করে টিটাগড় ও ব্যারাকপুরবাসী জানতে চাইছে। কারা জড়িত, কারা সুপারি কিলার দিলো? তৃণমূলের দিকে আঙ্গুল দেখালে হবে না, বিজেপি সাংসদরা বিচলিত কেন? “এই সকল প্রশ্নের দাবী তৃনমুল নেতা জ্যোতিপপ্ৰিয় মল্লিকের।

বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনের পর অশান্ত হয়ে ওঠে গোটা ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায় নিহত মণীশের বাড়িতে ঘুরে গিয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে সেই ব্যারাকপুরে শান্তিমিছিল করল তৃণমূল। টিটাগড় থানার সামনে থেকে মিছিল শুরু হয়। শেষ হবে ব্যারাকপুর চিড়িয়ামোড়ে। এদিন শাম্তিমিছিলে উপস্থিত ছিলেন পৌর ও নগরোন্ননমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, বিধায়ক নির্মল ঘোষ, পার্থ ভৌমিক, মদন মিত্র, বারাকপুর পৌরসভার পৌর প্রশাসক উত্তম দাস, টিটাগড় পৌরসভা পৌরপ্রশাসক প্রশান্ত চৌধুরী, নারায়ণ গোস্বামী-সহ অন্য নেতারা। এই মিছিলের বিরুদ্ধে পাল্টা মিছিলের দাবী বিজেপির, বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here