মঙ্গলবার রাতে টিউশনি পড়ে এক স্কুল ছাত্রী বাড়ি ফেরার সময় এক যুবক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করলে গ্রামবাসীরা পাকড়াও করে যুবক কে।পুলিশ এলে যুবককে তুলে দেয় তারা পুলিশের হাতে।

ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ঢোলাহাট থানার দিগম্বরপুর এলাকায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে দিগম্বরপুরে এক বিঞ্জান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী টিউশনি করে রাতেই বাড়ি ফিরছিল।

সেই সময় এক যুবক সাইকেলে করে এসে ছাত্রীর গায়ে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে এমনি অভিযোগ।কিন্তু স্কুল ছাত্রী বুদ্ধি করে যুবকের চুল ধরে আচমকা টেনে নিচে ফেলে দেয়।তারপর ছাত্রী যুবকের গায়ের উপরে চেপে ধরে চড় ঘুষি মারতে থাকে।আর চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকে।

চিৎকার শুনে স্থানীয় মানুষজন ছুটে আসে।আর এই দৃশ্য দেখেই তারা অবাক হয়ে যায়।কোন রকমে ছাত্রীর হাত থেকে যুবককে ছাড়িয়ে একটি ঘরের মধ্যে আটক করে তারা।এ দিকে এই ঘটনায় যুবক তার কৃতকর্মের কথা স্বীকার করে নেয়।

ফলে এলাকার কিছু মানুষজন ছাত্রীকে বোঝায় যুবকের ভবিষ্যতের জন্য।যাতে ছাত্রী থানা পুলিশ না করে।কিন্তু ছাত্রী জেদ ধরে বসে সে থানাকে জানাবে এবং যুবকের উপযুক্ত শাস্তি চায়।

তার জেদের কাছে হার মানে এলাকার কিছু মানুষের যুক্তি।তারা খবর দেয় থানায়।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ বাহিনী।পুলিশ এলে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

যুবক স্বীকার করে নেয় সে সাইকেলে যাওয়ার সময় ছাত্রীর গায়ে হাত দেয়।তখন ছাত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে গিয়ে আমাকে পাকড়াও করে মারধর শুরু করে।এই ঘটনায় পুলিশ যুবক কে গ্রেফতার করে এবং পুলিশ ধৃত যুবক কে বুধবার কাকদ্বীপ কোর্টে তোলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here