murshidabad district president

মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের কলেজকে ব্যক্তিগত কলেজ হিসাবে ব্যবহার করার অভিযোগ তুললেন জেলা সভাধিপতি।

শুক্রবার মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন, জেলা পরিষদের ১ কোটি টাকা অনুদানে ১৯৯৭ সালে এমসিইটি কলেজ প্রতিষ্ঠা হয়।

এই সময় জেলা পরিষদের সভাধিপতি ছিলেন নৃপেন চৌধুরী, পরবর্তীকালে নৃপেন চৌধুরী সভাধিপতির বিদায় কালে

নতুন সভাধিপতির দায়িত্বভার গ্রহণ করার সময় নৃপেন বাবু ওই কলেজের কাগজপত্র নতুন সভাধিপতিকে বুঝিয়ে দিয়ে যাননি বলে জানা গিয়েছে।

তৃনমুল ছাত্র পরিষদের প্রতিসঠা দিবসে এক অন্য ছবি উঠে এল, তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখোলো বিজেপি কর্মীরা।

 

সেই সময় নৃপেন বাবুর কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি ওই কলেজকে ব্যক্তিগত কলেজ হিসেবে ব্যবহার করতে থাকেন।

দীর্ঘদিন পরে বর্তমান সভাধিপতি মোসারফ হোসেন পুরাতন নথি ঘেঁটে সমস্ত ব্যাপার জানতে পারেন।

সভাধিপতি জানান বর্তমানে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা ওই কলেজকে বন্ধ করার চেষ্টা করছে এবং সম্পত্তি বিক্রির চেষ্টা করছে।

এই মত অবস্থায় সভাধিপতি ইতিমধ্যেই  কলেজের সঙ্গে জড়িত দুই ব্যক্তির নামে বহরমপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

কিছু ব্যাক্তি কলেজের টাকা তছরুপ করেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন সভাধিপতি। পাশাপাশি সভাধিপতি মূর্শিদাবাদ কলেজ ইঞ্জিনিয়ারিং অফ টেকনোলজি কলেজ যাতে

জেলা পরিষদের স্বীকৃতি পায় এবং কলেজকে জেলাপরিষদের আওতা ভূক্ত করা হয় তার চেষ্টা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here