এক গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনায়, ওই গৃহবধূর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মৃতদেহ রাস্তায় ফেলে পথ অবরোধে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো কাকিনাড়া এলাকায়।

উত্তর চব্বিশ পরগনার কাঁকিনাড়া রথতলা বাজারপাড়া এলাকার রিত্বিকা দাস ও ঐ এলাকার যুবক অমিত দাসের দীর্ঘদিন প্রেম চলার পর মাস তিনেক আগে দুজন বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই রিত্বিকার বাপের বাড়ি থেকে টাকা পয়সা বাইক দাবি করতে থাকে। তার এই দাবি না পেয়ে রিত্বিকার ওপর নানান ভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো স্বামী অমিত দাস।

এরপর সেই অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে গত বুধবার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে রিত্বিকা। কোনক্রমে তাকে উদ্ধার করে কল্যাণী জওহরলাল নেহরু হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রবিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়। এরপর রাতে মৃতদেহ বাড়িতে এলে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকাবাসী।

পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী দোষীর গ্রেপ্তারের দাবিতে কাঁকিনাড়া অন্নদা ব্যানার্জী রোডে রথতলা বাজারের সামনে মৃতদেহ রাস্তায় রেখে পথ অবরোধ করে। পরে ভাটপাড়া থানার পুলিশ এসে দোষীর গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিয়ে অবরোধ তুলে দেয়। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here