অনেকের চোখেই ওরা স্রেফ পথশিশু, ওরা স্রেফ অনাথ। ওরা অনেকের কাছেই পায় না সমাদর । ওরা নিজেরাও ভাবে না এমন সাম্যর বাস্তবতা যা শুক্রবার শেষ বেলায় নেমে এলো ওদের জীবনে । এলো সমতা আর আনন্দের ঘেরাটোপে এক পরিবারের উৎসবের দিনে।

এক বনেদি পরিবারের দুটি মানুষের জন্মদিন অনাথ ও পথশিশুদের আনন্দ উৎসব পালন হল ভিন্ন মোড়কে যেখানে উৎসবের প্রাণ ছিল পথশিশু অনাথ শিশুর দল । যে খুদেরা অন্য অনেকের কাছে স্রেফ অনাথ পথশিশু তারা খুঁজে পেল জীবনে এক নতুনতর ব্যঞ্জনা ।

শুক্রবার বারাসাতের এক চিকিৎসকের পুত্র কন্যার জন্মদিন তাই মিশে গেল আলোকজ্জ্বল ঝাঁ চকচকে বহুতলে না এলো হল অনন্য আঙ্গিকে বহু অখ্যাত অনামী শিশুদের মুখের ভিড়ে।

রকমারি খাদ্য সামগ্রীর আতিশয্যে নয়। আভিজাত্য সম্পন্ন অতিথিদের শুভাগমনে নয়। ধ্রুপদী সঙ্গীতের সুরের মূর্ছনায় নয়। প্রথাগত মেকি নিয়মের বেড়াজালে নয়। নিয়মের বাইরে। বারাসাত সমন্বয় পরিবারের প্রচেষ্টায় চিকিৎসক অরুন গণের পুত্র কন্যা রাতুল -শ্রেষ্ঠার জন্মদিন|


বেনিয়মকে সঙ্গী করে স্মরণীয় হয়ে থাকল একঝাঁক কচিকাঁচা অনাথ, পথশিশু, দুঃস্থ অসহায় শিশুদের বাঁধভাঙা অনাবিল আনন্দ উচ্ছ্বাসের মধ্যে দিয়ে। শান্ত মোমের স্নিগ্ধ আলোয় কেকের সমভাগের মধ্যে দিয়ে গান, আবৃত্তি,নাচ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় শিশুদের সঙ্গে হারিয়ে যাওয়া শৈশবকে খুঁজে নিলেন চিরতরুণ ডাঃ গন, তাঁর পুত্র কন্যা সহ সমগ্র পরিবার।


বারাসাত সমন্বয় পরিবারের পক্ষ থেকে পালন করা হল উৎসবের আঙ্গিকে । অনুষ্ঠানের শেষে অনাথ ও পথ শিশুদের মুখে তাই হাজার ওয়াটের আলো ।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here