“বিজেপি কর্মীদের বাড়ি থেকে বেরোতে দেব না, ঠ্যাং ভেঙ্গে দেব, পারলে কিছু করে নেবেন” বীরভূমের হেতমপুরে বললেন অনুব্রত মণ্ডল


নির্বাচনের দিনক্ষণ যতই এগিয়ে আসছে ততই রাজনৈতিক দলগুলো ময়দানে নেমে পড়েছে।

কেউ এক টুকরো জমি ছাড়তে নারাজ। আজ বীরভূম জেলার দুবরাজপুর ব্লকের হেতমপুরে দুবরাজপুর ব্লক ও শহর তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে আজ বিরাট ঐতিহাসিক জনসভার আয়োজন করা হয়।

এদিন প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

তিনি ছাড়াও এদিন উপস্থিত ছিলেন বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ অসিত মাল, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সহ-সভাপতি মলয় মুখোপাধ্যায়, দুবরাজপুর বিধানসভার বিধায়ক নরেশ চন্দ্র বাউরী, জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরি, দুবরাজপুর ব্লক সভাপতি ভোলানাথ মিত্র, দুবরাজপুর শহর সভাপতি পীযূষ পাণ্ডে, রফিউল খান, কাসেমুল হক সহ অন্যান্যরা।

গতকাল মঙ্গলকোটে তৃণমূল কর্মী খুনে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, বিজেপি কর্মীদের বাড়ি থেকে বেরোতে দেব না, বেড়িয়ে ঠেঙ ভেঙ্গে দেব, পারলে কিছু করে নেবেন, আমি নোংরা রাজনীতি করি না।

অন্যদিকে, অনুব্রত মণ্ডলের উদ্দেশ্যে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন মেরে হাত পা ভেঙ্গে দেব।

জবাবে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ওর সম্বন্ধে নাম করলে উনি হাই লাইট হতে খুজছেন, আমি চাই না যে হোঁচট লেগে পড়ে যাক। ময়দানে আসুক হাডুডু খেলার জন্য।

তিনি আরও বলেন, বড় চাট মারলে থুথুনি ফেটে যায়, হাঁটুও ভেঙ্গে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here