barasat court

ডিভোর্স না দেওয়ায় আইনজীবী স্বামীকে খুন করে আইনজীবী স্ত্রী অনিন্দিতা।

২০১৮ সালের ২৪ নভেম্বর রাতে নিউটাউনের ডিবি ব্লকের ফ্ল্যাটে আইনজীবী রজত দে’র অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। এর পরে ডিসেম্বরের এক তারিখ গ্রেপ্তার হন অনিন্দিতা,চলে দীর্ঘ শুনানি পর্ব।

একত্রিশ জন সাক্ষী ছিলেন এই শুনানিতে। অবশেষে সোমবার অনিন্দিতা কে স্বামী খুনে দোষী সাব্যস্ত করল বারাসাত আদালত।

অন্যদিকে,পুত্র কে খুন করার অভিযোগে পুত্রবধূ দোষী সাব্যস্ত হতেই আনন্দে কেঁদে ফেললেন রজত দের বাবা সমীর কুমার দে।

সরকারি আইনজীবী বিভাস চ্যাটার্জী জানালেন, বৈবাহিক সম্পর্ক থেকে সরে যেতে স্বামীকে বারবার চাপ দিচ্ছিলেন।

স্বামী বিবাহ বিচ্ছেদে রাজী না হওয়ায় চাদরের ওপর দিয়ে মোবাইল চার্জার জড়িয়ে চার্জারের তারে শ্বাস রোধ করে চৌত্রিশ বছরের লম্বা চওড়া চেহারার রজত কে খুন করে অনিন্দিতা।

অনিন্দিতার পক্ষের আইনজীবী জ্যোতির্ময় অধিকারী জানালেন, আদালতের রায় “ভুল’। তাঁরা হাইকোর্ট যাবেন “অনিন্দিতার ন্যায় বিচার অর্জন করার লক্ষ্যে “।

রজত দের বাবা সমীর কুমার দে জানালেন, মানুষের পর্যায়ভুক্ত নয় অনিন্দিতা।

পুত্রবধূকে নারী জাতির কলঙ্ক আখ্যা দিয়ে সমীর কুমার দের বক্তব্য, অনিন্দিতার চরমতম সাজাই প্রাপ্য। কি সাজা হয় তার জন্য প্রতীক্ষা ১৬ তারিখ অব্দি।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here