CM is crying for smugglers: Sayantan Basu

নিজস্ব সংবাদদাতা : মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকে ডাকাতের দল বলছেন আবার মুখ্যমন্ত্রী গরুপাচারকারীদের জন্য কাঁদছেন আর তাঁকেই ডাকাতরানী বলছেন তাঁর দলের নেতারা । এবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী চম্বলের ডাকাতের আস্তানা গুগলে কালীঘাটকেই না দেখিয়ে দেন, কটাক্ষ বিজেপির নেতা সায়ন্তন বসুর ।

বৃহস্পতিবার বারাসাতের কলোনী মোড়ে চায়ে পে চৰ্চায় যোগ দিয়ে সায়ন্তন বসুর দাবী আসন্ন উনিশ তারিখের পরে তৃণমূলের জাহাজ ডুবতে শুরু করবে, বিপ্লবী ইঁদুরদের আর খুঁজে পাওয়া যাবে না ।

সায়ন্তন বসু নাগরিকত্ব আইন পশ্চিমবঙ্গে কার্যকর করার প্রসঙ্গে বলেন, কেন্দ্র দ্ৰুত এই আইন বাস্তবায়িত করতে চাইলেও তৃণমূল এই আইন কার্যকর করার ক্ষেত্রে অন্তরায় হওয়ায় তিন-চারমাসের মধ্যেই ক্ষমতায় এসে বিজেপি রাজ্যে সিএএ কে পূর্ণভাবে প্রয়োগ করবে ।

 CM is crying for smugglers: Sayantan Basu1
শুভেন্দু দলে এলে দিলীপ ঘোষের স্থান ঠিক থাকা নিয়ে তৃণমূল নেতা সৌগত রায়ের তোলা প্রশ্নের উত্তরে সায়ন্তন বসু জানান, একদা জ্যোতি বসু উপহাসের পাত্র তৃণমূলের প্রবীণ নেতা তাঁর দলে এখন জ্যাঠামশাইয়ের সাইডরোল প্লে করছেন ।

 

নারদা -সারদা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্তরা বিজেপি মুখী বলেছেন তৃণমূল নেতা কল্যাণ বন্দোপাধ্যায় আর এ প্রসঙ্গে সায়ন্তন বসু জানান, কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়ের অনেক দুর্নীতি সামনে আসা সময়ের অপেক্ষা। সায়ন্তন এও বলেন সারদা নারদা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্তরা যদি বিজেপিতে আসছেন এমনটাই হত তাহলে তৃণমূল দলই থাকত না এবং তিনি এই কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত থাকায় সৌগত রায়ের বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন ।

 

চিট ফান্ড কেলেঙ্কারিতে তৃণমূল নেতাদের সৌজন্যে সর্বস্বান্ত সাধারণ মানুষ, আর রাজ্য সরকার এই কেলেঙ্কারি চাপা দিতে ব্যস্ত হলেও বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এসে মানুষের টাকা ফেরত দেবে, ঘোষণা সায়ন্তন বসুর ।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here