বারুইপুর বিজেপির জেলা অফিসে ধুন্দমার,গোষ্ঠীকোন্দল প্রকাশ্যে, ১১ জন আহত বলে অভিযোগ।এবার বারুইপুরে বিজেপির জেলা অফিসে গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে চলে এল। রাজ্য ও কেন্দ্রের নেতাদের সামনেই চলল দুই গোষ্ঠীর মধ্যে মারধোর,বচসা। করা হল চেয়ার ভাঙচুর। এমনকি বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক অনুপম হাজরার গাড়ি রাস্তায় আটকে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মীরা।

রবিবার বিকালের পর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। বিজেপির জেলা সভাপতি হরিকৃষ্ণ দত্ত অভিযোগ করেন,১১ জন বিজেপি কর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জন কর্মীর অবস্থা গুরতর। মহিলাদেরও সন্মানহানি করা হয়েছে। রবিবার সকাল থেকেই বিজেপির কার্যকরনি বৈঠক চলছিল। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন বিজেপির রাজ্য ও কেন্দ্রের নেতারা। সভাতে মাস্ক ছাড়াই আসেন কেন্দ্রীয় সম্পাদক অনুপম হাজরা।

রাহুল সিনহা সম্পর্কে তিনি বলেন,একবার চায়ের আড্ডা হলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। বিকালে কেন্দ্রীয় সম্পাদক বেরিয়ে যেতেই গণ্ডগোলের সুত্রপাত্র। দুই গোষ্ঠী একে অপরের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে। চলে মারধোর। জেলা সভাপতি হরিকৃষ্ণ দত্তর অভিযোগ, বিজেপির সাধারন সম্পাদক স্বরূপ দত্ত ও মন্ডল সভাপতি দেবোপম চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয়।

আহত বিজেপি কর্মীদের বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে গড়িয়ার এক বেসরকারি নার্সিং হোমে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে,অভিজুক্ত সাধারন সম্পাদক স্বরূপ দত্ত অভিযোগ এনে বলেন,বিজেপির জেলা সভা সভাপতি সমান্তরাল সংগঠন চালাচ্ছেন। ৪৫ জন মন্ডল সভাপতিকে ডাকা হয়নি সভায়। এদিকে,ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় যায় বারুইপুর থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here